প্রতিদিন ৫ লাখ জাল নোট তৈরি করে চক্রটি

রাজধানীর পল্টন এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ নকল টাকা তৈরির সরঞ্জামসহ ৫৭ লাখ টাকার জাল নোট জব্দ করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। সে সময় জাল টাকা চক্রের মূলহোতাসহ ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারা হলেন- শাহিন, হান্নান, কাওসার, আরিফ, ইব্রাহিম ও খুশি। শুক্রবার (১৪ আগস্ট) বিকেল ৩টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানান ডিবি গুলশান জোনের উপকশিমনার মশিউর রহমান।

ডিবির এ কর্মকর্তা ভোরের কাগজকে বলেন, ঈদের পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারি তেমনটা থাকবে না ভেবেই রাজধানী পল্টনের মতো এলাকায় জাল টাকার কারখানা স্থাপন করেছিল এ চক্রটি। প্রতিদিন তারা ৫ লাখ টাকা জাল নোট তৈরি করে আসছিল। ৫০০-১০০ হাজার টাকার একটি জাল নোটের বান্ডিল তারা ৯ থেকে ১৩ হাজার টাকায় বিক্রি করে আসছিল।

তিনি আরো বলেন, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি ২৫/২ পুরানা পল্টন লেন, বিএনপির পার্টি অফিসের দক্ষিণ পাশে অবস্থিত একটি ভবনের পঞ্চম ও ষষ্ঠ তলা ভাড়া নিয়ে জাল টাকা তৈরি করে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। ঈদের আগে আগে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সাঁড়াশি অভিযান চালাবে এই আশঙ্কায় এ চক্রের সদস্যরা ঢাকা শহরের বাইরে বিভিন্ন জায়গায় অবস্থান করছিল। ঈদের পরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সাধারণত তাদেরকে খুঁজবেনা এই আশায় বড় আঙ্গিকে ব্যবসার উদ্দেশ্যে তারা রাজধানীর পল্টনের মতো গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় বড় কারখানা স্থাপন করে।

এই কারখানার অর্থদাতা শাহিন একাধিক মামলার আসামি। আটককৃত অন্যরাও আগে একাধিক মামলায় হাজতবাস করেছে। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে ছাপার বিষয়টি দেখতেন হান্নান। বিশেষ কাগজ তৈরি করতেন কাওসার। ম্যানেজার আরিফ ছাড়াও ইব্রাহিম ও খুশি বিভিন্ন জায়গায় নকল টাকা পৌঁছে দিতেন। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।